নবপ্রতিষ্ঠিত কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রথমবারের মতো চুড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষা গ্রহন করা হচ্ছে। আজ মেডিসিন বিষয়ে ক্লিনিক্যাল ওরাল পরীক্ষা গ্রহন শুরু হয়েছে। আজ থেকে মোট চারদিন এই পরীক্ষা গ্রহন করা হবে। মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডাঃ মোতাহার হোসেনের নেতৃত্বে তিনজন ইন্টার্নাল ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে আগত তিনজন এক্সটার্নাল পরীক্ষক এই পরীক্ষা গ্রহণ করছেন।

শিক্ষাজগতে সবচেয়ে জটিল শিক্ষা কোর্স হিসেবে বিবেচিত এমবিবিএস শিক্ষা কারিকুলামে বিভিন্ন পর্বের পেশাগত পরীক্ষা বাংলাদেশে বছরে মোট দুই বার অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে- মে ও নভেম্বর। মে/২২ সেশনে অনুষ্ঠেয় এই পরীক্ষায় নিয়মিত ৩য় ব্যাচের (CMMC-03) ৪৪ ও পুরোনো ৫ জন সহ মোট ৪৯ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষায় মেডিসিন, সার্জারি ও গাইনি বিষয়ে লিখিত, অসপি, ক্লিনিক্যাল, ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। ইতিপূর্বে, সকল বিষয়ে লিখিত ও অসপি পরীক্ষা এবং সার্জারি বিষয়ে ক্লিনিক্যাল, ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা গ্রহন সম্পন্ন হয়েছে। আজ মেডিসিন বিষয়ে ক্লিনিক্যাল, ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা শুরু হলো। মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে সার্জারি পরীক্ষা ইতিমধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং একই স্থানে গাইনি পরীক্ষা অনুষ্ঠি হবে। মেডিসিন পরীক্ষা নবপ্রতিষ্ঠিত হাসপাতালে অনুষ্ঠিত হওয়ার মধ্য দিয়ে অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আরেক ধাপ এগিয়ে গেল। এ উপলক্ষ্যে অধ্যক্ষ ডাঃ মোঃ জাকির হোসেন ও পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ বজলুল করিম চৌধুরী সন্তুষ্টি প্রকাশ পূর্বক সংশ্লিষ্ট সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

3 thought on “কমামেক হাসপাতালে প্রথমবারের মতো চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষা গ্রহণ”

Make a Comment